,

কুবিতে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতীয় শোক দিবস পালন

কুবিতে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর ৪৫তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়েছে।

শনিবার (২৯ আগস্ট) বিকাল ৪টায় ভার্চুয়াল আলোচনা সভার মাধ্যমে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের সাথে স্বাধীনতার মহান স্থপতি, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন এবং কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক ড. মো. আসাদুজ্জামান। সভায় সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এমরান কবির চৌধুরী। আলোচনা সভাটির সঞ্চালনায় ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. মো. আবু তাহের।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করার মাধ্যমে কুচক্রীমহল চেয়েছিল বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্রটিকে গলা টিপে হত্যা করতে। ষড়যন্ত্রকারীরা এখনো চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে এবং তারা আমাদের মধ্যেই আছে। আমাদের সকলকে সজাগ থাকতে হবে।

তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইন ক্লাস শুরু হয়েছে। ছাত্র-ছাত্রীরা অনলাইন ক্লাসে অংশগ্রহণ করছে। মন্ত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের দৃষ্টি আকর্ষণ করে প্রান্তিক গরীব ছাত্র-ছাত্রীরাও যাতে অনলাইন ক্লাসে অংশগ্রহণ করতে পারে সেজন্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকেও প্রয়োজনীয় সুবিধা প্রদানের চেষ্টা করতে বলেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে শিক্ষা সচিব বলেন, বঙ্গবন্ধকেু হত্যা শুধু কতিপয় বিপথগামী গোষ্ঠীর চক্রান্তই নয় এটি একটি সুপরিকল্পিত দেশী ও আন্তর্জাতিকভাবে গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ। তিনি আরো বলেন, ছাত্র-ছাত্রীদেরকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের চর্চা করতে হবে এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নের জন্য শিক্ষকবৃন্দরাও শক্তিশালী ভূমিকা রাখতে পারেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক ড. মো. আসাদুজ্জামান বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের নৃশংস হত্যাকাণ্ডে জাতির পিতাসহ সকল শহীদদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং ওই ঘটনার পূর্বাপর সকল খুনি, ষড়যন্ত্রকারী ও বিশ্বাস ঘাতকদের মুখোশ উন্মোচন করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন।

শোক সভার উপাচার্য প্রফেসর ড. এমরান কবির চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধুর একক নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, আজ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য একটি ঐতিহাসিক দিন। শিক্ষা পরিবারের দুই জন অভিভাবক শিক্ষামন্ত্রী এবং সচিব দু’জনই আজকের আলোচনা সভায় উপস্থিত থেকে আমাদেরকে ধন্য করেছেন। এজন্য তিনি মন্ত্রী এবং সচিবকে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা জানান।

অন্যান্যের মধ্যে লোকপ্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. জিয়াউদ্দিন, কর্মকর্তা সমিতির সভাপতি জিনাত আমান, ছাত্রলীগ কুবি শাখার সভাপতি ইলিয়াস হোসেন সবুজ আলোচনা সভায় সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন।


     More News Of This Category